in

অভিনেত্রী থেকে প্রযোজক ডালিয়া ঘোষ

সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন সৌমি সেন ক্যামেরায় বুলান ঘোষ

অভিনয় থেকে প্রযোজনায় পা রাখলেন এক নবাগতা অভিনেত্রী. ইতিমধ্যেই টলিউড,  বলিউড এবং হলিউডে দেখা গিয়েছে নানান উঠতি অভিনেত্রীদের,  তারা প্রযোজনায় পা রেখেছেন. আর সেই স্রোতে গা ভাসালেন ডালিয়া ।  কিন্তু হঠাৎ কেন এই সিদ্ধান্ত? লকডাউন একই তার এই সিদ্ধান্তের কারণ?  এ সমস্ত প্রশ্ন নিয়ে একান্ত আলাপচারিতায় উঠে এল নানা প্রসঙ্গ.

হঠাৎ প্রযোজনায় আসা কেন? 

প্রযোজনায় আসার ইচ্ছে ছিল অনেকদিন থেকেই. মাত্র  12 বছর বয়সে অভিনয় শুরু করি।  প্রথম কাজ মেগা  সিরিয়াল. সিরিয়াল থেকেই আমার অভিনয়ের  যাত্রা শুরু. তখন থেকেই মনের মধ্যে একটা সুপ্ত বাসনা ছিল প্রযোজক হবার. আমি হুগলি পান্ডুয়ার মেয়ে. পান্ডুয়া থেকে কলকাতা রেগুলার যাতায়াত করেছি বেশ কয়েক বছর।

এখানে মূলত নতুনদের সুযোগ করে দেওয়ার জন্যেই এই প্রযোজনা সংস্থা। আমি যখন নতুন ছিলাম তখন আমাকে প্রচুর স্ট্রাগেল করতে হয়েছে, আর নতুনদের এই ইন্ডাস্ট্রিতে প্রচুর স্ট্রাগল করতে হয়. নতুনদের সুযোগ করে দিতে চাই. তারা যাতে খুব ভালোভাবে কাজ করতে পারে তার জন্য এই ব্যবস্থা।

আমি খুব খুশি এত তাড়াতাড়ি আমার স্বপ্নটা সার্থক হতে পেরেছে বলে.  এর জন্য অবশ্যই আমার বাবা-মা এবং বাড়ির সবাই আমাকে খুব সাহায্য করেছে এবং এই প্রোডাকশনের যে কজন আছে তারা প্রত্যেকেই সাহায্য করেছে।

ছবিটা সম্পর্কে কিছু বল?

ছবিটার নাম “কাম অন”.   ছবিটা একটা কমেডি ছবি. এতদিন ধরে যে ধরনের কমেডি ফিল্ম আমরা দেখে এসেছি এটা তার থেকে একটু আলাদা।

ছবিটার গল্পটা একটু বলছি –  হিরো রাজদীপ এখানে নাম হচ্ছে রিক ।   রাজদীপ একটা হোটেলে তার গার্লফ্রেন্ডকে নিয়ে উঠে এবং সেখানে অন্তরঙ্গ হওয়ার সময় দেখে কনডম নেই।  তখন সেই রাত্রে বেলায় সেটা কিনতে রাস্তায় বেরোয়, কিন্তু সে পায় না কোন দোকানে এবং অনলাইনে অর্ডার করলে সেটি সাপ্লাই দেওয়া হবে না বলে জানা যায় তখন রাজদীপ  ও এই ছবি এর আর এক হিরো মৈনাক  দুজনে আলোচনা করে সমস্ত কিছুই যখন অনলাইনে পাওয়া যায় তখন এই  ইমারজেন্সি জিনিসটা কেন পাওয়া যায় না?   তারা ডিসাইড করে তারা এর বিসনেস  করবে,  এবং একটি এপপ্স  খোলে এই এপপ্স টির নাম হলো কাম অন. এই বিজনেস শুরু করতে গিয়ে তারা এক একটা এক এক দিন এক এক রকম সমস্যায় পড়েন  এবং এই ব্যবসা করতে গিয়ে নানা কাণ্ডকারখানা ঘটায় এবং সেই কাণ্ডকারখানা ঘিরে এক একটা ছোট ছোট গল্পের আকার ধারণ করে আর এই ছোট ছোট গল্প ঘিরেই তৈরি হচ্ছে একটা আস্ত ছবি।

ছবিটি  প্রধানত  ও টি টি প্লাটফর্মে রিলিজ হবে. বাংলা এবং হিন্দি এই দুটো ভাষাতে ফ্লিমটি  দেখা যাবে.  বাংলায় শুটিং করা হলেও হিন্দিতে ডাবিং করা হচ্ছে।

ছবিতে তোমার চরিত্র টা কি?

আমার চরিত্রের নাম ঋতুজা.ঋতুজা খুব  সন্দেহবাতিক একটা মেয়ে সবসময় সে তার বয়ফ্রেন্ডকে সন্দেহ করে খুব পজেসিভ এবং সবসময় দেখে যে সে কি করছে কোথায় যাচ্ছে কি বৃত্তান্ত সবসময় তার উপরে নজর রাখে।

বাস্তবেও কি তুমি এইরকম তোমার হিরো কে সন্দেহ করো? 

আগে ছিলাম কিন্তু এখন বড় হয়ে গেছি তাই এখন আর সন্দেহ করি না।

করোনা  পরিস্থিতিতে বিভিন্ন জায়গায় শুটিং,   বিশেষত প্লট বুকিং  করতে কোনো সমস্যা হয়নি?

না, এখনো পর্যন্ত কোন সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় নি আর আমি যেহেতু সব থেকে ছোট তাই আমাকে এই দিকটা মাথা ঘামাতে হয়নি আমার টীম এ যারা যারা আছেন তারা সবাই আমাকে খুব হেল্প করছেন. এবং তারাই সমস্ত দায়িত্ব নিয়ে এই বুকিং গুলো করেছেন তাই আমাকে কোন মাথা ঘামাতে হয় নি।

কাম অন  খুব ভালোভাবে সাফল্য পাক. আর  সাফল্য পাক ডালিয়ার নুতন প্রোডাকশন হাউস.   সিনে কলকাতার তরফ থেকে রইল  অনেক অনেক শুভেচ্ছা।

What do you think?

Written by Cine Kolkata Desk

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Loading…

0

শুরু হলো থিজম এর খাদ্যমেলা চেটে পুটে

অভিনয়ের টানে ঘরে ফেরা