দু’বছর পর জামিন পেলেন SVF এর কর্ণধার প্রযোজক শ্রীকান্ত মোহতা

নতুন বছরের শুরুতেই টলিউডের প্রযোজনা সংস্থা SVF-এর অন্দরমহলে খুশির হাওয়া। প্রায় দুই বছর পর জামিন পেলেন সংস্থার অন্যতম SVF এর কর্ণধার শ্রীকান্ত মোহতা (Shrikant Mohta)। শারীরিক অসুস্থতার জন্যই তাঁর জামিন মঞ্জুর করে সুপ্রিম কোর্ট। শীর্ষ আদালতের ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়ের বেঞ্চে বাংলার প্রযোজকের পক্ষ থেকে আবেদন জানিয়েছিলেন আইনজীবী কপিল সিব্বল।

২০১৯ সালের ২৪ জানুয়ারি গ্রেপ্তার করা হয়েছিল শ্রীকান্ত মোহতাকে। রোজভ্যালির কর্ণধার গৌতম কুণ্ডুর কাছ থেকে সিনেমা প্রযোজনা করার জন্য ২৫ কোটি টাকা নিয়েছিলেন তিনি। সিবিআই সূত্রে খবর, গৌতম জেরায় দাবি করেছিলেন, ২০১০ সালে শ্রীকান্তের শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মসের রোজভ্যালি গোষ্ঠীর টেলিভিশন চ্যানেলের সঙ্গে চুক্তি হয়। ওই চুক্তি অনুযায়ী প্রযোজনা সংস্থা ২৫ কোটি টাকার বিনিময়ে তাদের ৭০টি ছবি রোজভ্যালির চ্যানেলে দেখানোর স্বত্ব বিক্রি করে। কিন্তু পরে তা নিয়েও সংঘাত হয় দুপক্ষের।

আদালতে গৌতম কুণ্ডুর সংস্থা জানায়, তার মধ্যে নতুন ছবি দেওয়ার কথা ছিল। একাধিক পুরনো ছবি দিয়েছিল শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মসে। ৩০টি ছবির মধ্যে অধিকাংশই ছিল পুরনো। রোজভ্যালির টাকা দিয়েই শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মসে লছবি বানাবে তাও উল্লেখ ছিল চুক্তিতে। এমনটাই দাবি সিবিআইয়ের।

জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একাধিকবার শ্রীকান্ত মোহতাকে নোটিস পাঠিয়েছিল সিবিআই (CBI)। তিনি হাজির না হওয়ায় ২০১৯ সালের ২৪ জানুয়ারি কসবায় এসভিএফের অফিসে হানা দেন সিবিআইয়ের ২০ জন আধিকারিক। তিনি কেন ওই সংস্থার কাছ থেকে টাকা নিয়েছিলেন, তা নিয়ে শ্রীকান্তকে প্রশ্ন করেন আধিকারিকরা। শোনা গিয়েছিল, একাধিক প্রশ্নের স্পষ্ট জবাব দিতে পারেননি প্রযোজক। বহু নথিপত্রও দেখাতে পারেননি তিনি। এরপরই তাঁকে সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেও তাঁর বয়ানে অসঙ্গতি দেখা যায়। শেষ পর্যন্ত তাঁকে গ্রেপ্তার করে সিবিআই।
এর আগে একাধিকবার নিম্ন আদালতে শ্রীকান্ত মোহতার জামিনের আবেদন খারিজ হয়ে গিয়েছিল৷ শেষ পর্যন্ত সুপ্রিম কোর্ট তাঁর আবেদন মঞ্জুর করল৷

What do you think?

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Loading…

0

‘লতা মঙ্গেশকরের গানের কভার গাইলেন ‘অর্পিতা বিশ্বাস ‘ : শুনে নিন

অঙ্কুশ- ঐন্দ্রিলা জুটির ‘ম্যাজিক’ মুক্তি পাচ্ছে ১২ ফেব্রুয়ারি