চলতি বাংলা ছবিতে রূপকথার গল্প সে ভাবে দেখা যায় না। ফলে গত বছরের শেষের দিকে পরিচালক অনিকেত চট্টোপাধ্যায় যখন ‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’ ছবির ঘোষণা করেন, তখন দর্শকদের মধ্যে অপেক্ষা শুরু হয়েছিল।

বিশেষ করে হবুচন্দ্র রাজার ভূমিকায় দেব এবং তাঁর রানির ভূমিকায় রুক্মিণীকে কাস্ট করার খবরে অপেক্ষা আরও বেড়েছিল। কিন্তু দেব ভক্তদের জন্য দুঃসংবাদ। এই ছবিতে দেখা যাবে না তাঁকে। এমনকি, রানির চরিত্র থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন রুক্মিণীও। এ খবর জানালেন স্বয়ং পরিচালক।

অনিকেতের কথায়: ‘‘ছবির কাস্ট চেঞ্জ হচ্ছে। ফাইনাল হলে জানাব। আসলে স্ক্রিপ্ট হওয়ার পর দেব নিজেই বলেছিল, ও জাস্টিফাই করতে পারবে না। সে কারণেই চেঞ্জ হল।’’ ‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’-তে তিনি যে অভিনয় করছেন না, তা স্বীকার করে নিলেন দেবও। পরিবর্তিত কাস্টের নাম খুব তাড়াতাড়িই জানাবেন বলে আশ্বাস দিলেন অভিনেতা।

দিন দু’য়েক আগে স্ক্রিপ্ট পড়ার একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছিলেন দেব। সেখানে ছিলেন পরিচালক এবং ছবির প্রধান চিত্রগ্রাহক। সেই পোস্টেই দেব এই ছবি থেকে সরে যাওয়ার আভাস দিয়েছিলেন। রুক্মিণীর না থাকার কথাও জানিয়েছিলেন তিনি। এ দিন সেই খবরকেই মান্যতা দিলেন অভিনেতা।

এ ছবির গল্প কেমন? অনিকেত আগেই জানিয়েছিলেন, দক্ষিণারঞ্জন মিত্র মজুমদারের ‘সরকার মশাইয়ের থলে’ আর ‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’ এই দুটো গল্প থেকে নিয়ে স্ক্রিপ্ট করা হয়েছে। এ ছবির মন্ত্রী রাজার বকলমে দেশ শাসন করে। দেশটা যেন উল্টো রাজার দেশ। যেখানে মুড়ি-মিছরির দাম এক। অদ্ভুত বেশ কিছু জিনিস রয়েছে।

বিচার ব্যবস্থাও অদ্ভুত। ‘‘মজার গল্প। হাতি, ঘোড়া, রাজসভা, জাদুকর, রাজার পারিষদ থাকবে। বাচ্চাদের জন্য দারুণ এন্টারটেনমেন্ট। ‘হীরক রাজা’, ‘গুপি গাইন বাঘা বাইন’-এর পরে আর রূপকথা সে ভাবে হয়নি। এটা এক রকম রূপকথায় ফিরে আসা,’’ বলেছিলেন তিনি।

দেব-রুক্মিণীর বদলে নতুন কোন রাজা-রানি আসবেন, এখন তার অপেক্ষাতেই সিনেপ্রেমীরা।