February 18, 2019
Breaking News
  • Home
  • Trending
  • শুভ জন্মদিন পীযুষ সাহা : দেখে নিন বাংলা সিনেমায় তার কিছু অবদান

শুভ জন্মদিন পীযুষ সাহা : দেখে নিন বাংলা সিনেমায় তার কিছু অবদান

By on July 20, 2018 32 13804 Views

 

প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের প্রথম ছবি ‘দুটি পাতা’ যখন বেরোয় তখন তিনি স্কুলছাত্র।ছবির নায়কের একটা অটোগ্রাফ নেওয়ার জন্য হন্যে হয়ে ঘুরেছিলেন।মিঠুন চক্রবর্তীর এতো বড়ো ভক্ত ছিলেন যে তাকে একটিবার চোখের দেখা দেখার জন্য হুড়োহুড়িতে পুলিশের লাঠিও খেয়েছিলেন। সেদিনই সেই ছেলেটা প্রতিজ্ঞা করেছিলেন যে এদের কাছের মানুষ হয়ে উঠবেন।ভগবান তাঁর সেদিনের সেই কথাটা শুনেছিলেন।সিনমার চিত্রনাট্যের মতো শুনতে লাগলেও কথাটা সত্যি তাঁর প্রত্যেকটা স্বপ্ন অতিসফল।পরবর্তী কালে সেই ছেলেটিই হয়ে উঠলেন বাংলার অতি জনপ্রিয় চলচিত্র নির্মাতা।

 

 

there is nothing that he cannot do once he sets out to achieve it. His boundless love for films makes him the director, producer, writer & leader that he is today. #HappyBirthdayPijushSaha❤️

there is nothing that he cannot do once he sets out to achieve it. His boundless love for films makes him the director, producer, writer & leader that he is today. #HappyBirthdayPijushSaha❤️

Posted by Prince Entertainment P4 on Monday, 4 February 2019

 

প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে করলেন ‘রাজু আঙ্কেল’,’শত্রুর মোকাবিলা’, ‘কর্তব্য’ ,’গ্যাঁড়াকল’।যে ছবিগুলো বাঙালি হৃদয়ে গেঁথে আছে।

মিঠুন চক্রবর্তীকে নিয়ে তাঁর ছবি ‘তুলকালাম’ তো বাংলাকে নাড়িয়ে দিয়েছিল। কার কথা বলছি এতক্ষন নিশ্চই বুঝে গেছেন। ….হ্যাঁ ঠিক ধরেছেন তিনি আমাদের অতি প্রিয় পীযূষ সাহা। সম্প্রতি এই মানুষটি চলচিত্র নির্মাতা হিসাবে ১৮ বছর পূর্ন করলেন।

  

নিপাট ভদ্র ,নিরহংকার, সুদর্শন , মাটির মানুষ পীযূষ সাহা এই দীর্ঘ ১৮ বছরে বাংলা চলচিত্রকে বহু কিছু উপহার দিয়েছেন। চলুন একটু পিছনের দিকে যাওয়া যাক।

টলিউড ইন্ডাস্ট্রীর জনপ্রিয় নায়ক অঙ্কুশকে তিনি বর্ধমানের এক মফঃস্বল থেকে তুলে এনে ঘষে মেজে বিরাট বড়ো করে ‘কেল্লাফতে’ ছবিতে নায়ক হিসেবে ব্রেক দিয়ে দর্শকে তিনি তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন।

কথায় আছে শিশুশিল্পীরা নাকি পরবর্তীকালে নায়ক হতে পারে না। একই ঘটনা ঘটেছিল সোহমের ক্ষেত্রেও।তখন সোহম সবার দরজায় গিয়ে কড়া নাড়লেও কেউ তার ডাকে সাড়া দেননি। যে মানুষটি তাকে নিয়ে প্রথম ভাবলেন তিনি পীযূষ সাহা। তাঁকে বড়ো পর্দায় একক হিরো হিসেবে  নিয়ে আসার সাহস দেখালেন এবং কারোর কথায় কর্ণপাত না করে তিনি তাকেও বড়ো করে লঞ্চ করালেন তিনি। রিয়েলিটি শোয়ের উপর তাঁর নিজের লেখা কাহিনী নিয়ে তৈরি করলেন ‘বাজিমাত’।ছবিও বাজিমাত হয়ে গেল। এর পর সোহমকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।এই ছবিতেই আত্মপ্রকাশ ঘটেছিল বর্তমানের সবচেয়ে জনপ্রিয় নায়িকা শুভশ্রীর

সুপারস্টার  জিত-এর একটা সময় বেশ কয়েকবছর খারাপ সময় যাচ্ছিল। তখন জিত -কোয়েল জুটিকে তিনিই ফিরিয়ে নিয়ে এসেছিলেন ‘নীল আকাশের চাঁদনী’ ছবির মাধ্যমে।সেই ছবিও সুপারদুপার হিট হলো । এই ছবির কাহানী , চিত্রনাট্য ও সংলাপ তাঁরই লেখা। জিত গাঙ্গুলীর সুরে ছবির গানগুলোও সুপারহিট ছিল। বাচ্ছাদের নিয়ে যখন কেউ ছবির কথা ভাবছিলেন না তখন তিনি বাচ্চাদের জন্য বানালেন ‘রাজু আঙ্কেল’।প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় অভিনীত এই ছবিটি সকলকে মুগ্ধ করেছিল। এই ছবি দিয়েই সুরকার হিসাবে আত্মপ্রকাশ ঘটেছিল অশোক রাজ-এর।
রঞ্জিত মল্লিক , প্রসেনজিৎ অভিনীত ‘গ্যাঁড়াকল’ ছবিতে সাথে তিনি যীশুকেও রেখেছিলেন।যীশু সেই সময় মূলত ‘এক নম্বর মেস বাড়ি’ বলে একটা সিরিয়াল করতো।

তারই হাত ধরে মফঃস্বলের আরেকটি ছেলে সূর্য ওরফে রুবেল দাসকে ‘বেপরোয়া’ ছবিতে লঞ্চ করান। বিরাট বাজেটের এই ছবিটির কাহিনী , চিত্রনাট্য , সংলাপ ও পরিচালনা তাঁরই। ইন্ডাস্ট্রীতে একটা কথা শোনা যায় পীযূষ সাহার হাত যার মাথায় পড়ে তিনি অবধারিত স্টার। স্টার মেকার এই মানুষটির শত্রুর সংখ্যাটাও কম নয়। বহু সময় বহু ভাবেই তাকে বিপদে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছে।’তুলকালাম’ ছবি করার জন্য তখনকার সরকারের চক্ষুশূল হয়েছিলেন।তদানীন্তন বহু নেতার হুমকি তাঁকে শুনতে হয়েছিল।বহু জায়গায় তাঁর ছবি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল।
তাঁকে নিয়ে অনেক বিতর্কও আছে তবুও লড়াকু এই মানুষটি কখনও থেমে থাকেননি।

  

বাংলা ইন্ডাস্ট্রীর উন্নতির জন্য তিনি সবসময় লড়াই করে গেছেন।তাঁকে বহু ভাবে দমানোর চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্ত কেউ কোনও ভাবে তাঁকে দমাতে পারেননি। বাঙালি ফিল্মমেকার হিসাবে আমরা তাঁর জন্য গর্ব বোধ করি।খুব শীঘ্রই এই ফিল্ম মেকারের আরেকটি ছবি ‘তুই আমার রানী’ মুক্তি পেতে চলেছে।ফ্লোরে রয়েছে ‘হরি ঘোষের গোয়াল‘ ও ‘লাল কুঠি ‘ছবি দুটি।

এখানেও এক ঝাঁক নতুন তারকাকে দেখা যাবে। সিনে কলকাতার তরফ থেকে এই মানুষটিকে জানাই অনেক শুভেচ্ছা  । আর ভবিষ্যতে আরো তারকা এবং আরো বাংলা ছবি তাঁর কাছ থেকে উপহার পেতে চাই ।

 

 

লেখা: রামিজ আলি আহমেদ

 
32 Comments
Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

PHP Code Snippets Powered By : XYZScripts.com
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
Facebook
Google+
http://cinekolkata.com/2018/07/%E0%A6%AA%E0%A7%80%E0%A6%AF%E0%A7%82%E0%A6%B7-%E0%A6%B8%E0%A6%BE%E0%A6%B9%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A7%A7%E0%A7%AE-%E0%A6%AC%E0%A6%9B%E0%A6%B0">
Twitter